টাক মাথায় চুল গজানোর পদ্ধতি

0
Loading...

বিশ্বের প্রায় এক তৃতীয়াংশ পুরুষ টাক সমস্যায় ভুগে থাকেন। নানান কারনে পুরুষেরা এই সমস্যার শিকার হন। চুল পড়ার হার বৃদ্ধি পেয়ে সৃষ্টি হয় টাকের। দিনে প্রায় ১০০টি চুল পড়াকে মোটামুটি স্বাভাবিক ধরা হয়ে থাকে। কারন নতুন চুল গজানোর জন্যও চুল পড়ে। কিন্তু এর চেয়ে বেশী চুল পড়া শুরু হলে এবং নতুন চুল না গজালে তা অবশ্যই লক্ষণীয় ব্যাপার। টাক সমস্যা ছেলেদের জন্য একটি অস্বস্তিকর ও কষ্টদায়ক একটি সমস্যা। কারন মাথায় চুল কমে গেলে অনেকেই নিজেকে নিয়ে একটু হীনমন্যতায় ভুগে থাকেন।

নতুন চুল গজাবার একটি দারুণ কার্যকরী পদ্ধতি ১০০% গ্যারান্টি

Loading...

কিন্তু ছেলেরা চাইলে একটু সতর্কতা অবলম্বন করে এই সমস্যা প্রতিরোধ করতে পারেন। এর জন্য শুধু ছেলেদেরকে অনুসারী হতে হবে মেয়েদের। ছেলেদের একটি বদঅভ্যাস হলো দেহ, চুল, ত্বক এসবের প্রতি তেমন যত্নশীল না হওয়া। আর এরই প্রভাব পড়ে দেহের ওপর। সুতরাং ভাগ্যকে দোষ দিয়ে লাভ নেই, নিজে সতর্কতার সাথে একটু যত্নশীল হন। দেখে নিন টাক থেকে বাঁচার কিছু উপায়।

নিয়মিত হালকা শ্যাম্পু দিয়ে চুল পরিস্কার রাখুন

ছেলেরা গোসল খুবই তাড়াহুড়ো করে করেন। চুল কম বলে সপ্তাহে ২ বারও শ্যাম্পু ব্যবহার করেন না। কিন্তু এটা খুবই ক্ষতিকর আপনার চুলের জন্য। প্রতিদিন না হলেও ১ দিন পরপর শ্যাম্পু করুন চুলে। আর এক্ষেত্রে বেছে নিন কোন হালকা শ্যাম্পু বা বেবি শ্যাম্পু। চুলের গোড়ায় ময়লা জমতে দেবেন না কোনো ভাবেই। ময়লা জমলেই চুল পড়া বেড়ে যায়।

তেল ব্যবহার করুন

ছেলেদের মধ্যে চুলে তেল দেয়ার ব্যাপারটি একদমই দেখা যায় না। কিন্তু চুলের গোড়া শক্ত করার জন্য চুলে তেল দেয়া খুব জরুরী। রাতের বেলা একটু তেল নিয়ে বসে যান চুল ম্যাসাজ করতে। সারারাত রেখে চুল ধুয়ে ফেলুন। চুলের গোড়া মজবুত হবে। নারকেল তেল, বাদাম তেল কিংবা অলিভ অয়েল ব্যবহার করুন। সরিষার তেল থেকে দূরে থাকুন।

পেঁয়াজ বা রসুন কিংবা লেবুর রস ব্যবহার করুন

চুলের প্রতি একটু যত্নশীল হন। চুলে পেঁয়াজ বা রসুন কিংবা লেবু- যে কোনো একটি চিপে নিয়ে রস চুলে লাগান। নিয়মিত ১ সপ্তাহ ব্যবহারে চুল পড়া বন্ধ হবে। টাকের হাত থেকে বাঁচবেন।

নতুন চুল গজাবার একটি দারুণ কার্যকরী পদ্ধতি ১০০% গ্যারান্টি

গ্রিন টী ব্যবহার করুন

চুলে গ্রিন টীর ব্যবহার নতুন চুল গজাতে সাহায্য করবে। ব্যবহার করা গ্রিন টীর টী-ব্যগ কিংবা চিনি ছাড়া তৈরি গ্রিন টী চুলের গোড়ায় লাগিয়ে রাখুন ১ ঘণ্টা। তারপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ৩ বার করুন। চুল পড়া বন্ধ করবে ও নতুন চুল গজাবে।

চুল শুকোতে দিন

চুল ছোট বলে গোসল করে বের হবার পর মাথায় তোয়ালে ঘষে ঘষে চুল শুকোতে দেখা যায় অনেককেই। এই ব্যাপারটি সম্পূর্ণভাবে এড়িয়ে চলুন। তোয়ালে মাথায় ঘোষলে চুলের গোড়া নরম হয়। চুল আপনা আপনি শুকোতে দিন। এতে চুলের গোড়ায় আদ্রর্তা ঠিক মত বজায় থাকবে।

নতুন চুল গজাবার একটি দারুণ কার্যকরী পদ্ধতি ১০০% গ্যারান্টি

ধূমপান বন্ধ করুন

যদি দেখেন আপনার চুল পড়ে যাচ্ছে কিন্তু নতুন চুল গজাচ্ছে না তাহলে জেনে রাখবেন এটা আপনার ধূমপানের অভ্যাসের সাথে সম্পর্কিত। ধূমপানের কারনে নতুন চুল গজানো বন্ধ হয়ে যায়। যে চুল গুলো পড়ে যায় তার জন্য নতুন করে চুল না গজালে টাক পরা অবশ্যম্ভাবী। তাই ধূমপানের অভ্যাস ত্যাগ করুন।

চুল পরা রোধের কিছু টিপস

•দিনে ৬-৮ গ্লাস পানি পান করুন।
•ভেজা চুল আঁচড়াবেন না।
•ভিটামিন ই সমৃদ্ধ খাবার খান।
•ব্যায়াম করুন।
•অতিরিক্ত স্টাইলিং থেকে দূরে থাকুন।
•যতটা সম্ভব মানসিক চাপ মুক্ত থাকুন।

নতুন চুল গজাবার একটি দারুণ কার্যকরী পদ্ধতি ১০০% গ্যারান্টি

Loading...

নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন!
[X]
Loading...